সয়াবিন তেলের দাম ২০২২ । সয়াবিন তেল লিটারে ১২ এবং চিনি কেজিতে বাড়ল ১৩ টাকা

সয়াবিন তেলের মূল্য বাড়ানো হলো লিটারে ১২ টাকা। এতে করে প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেলের মূল্য ১৯০ টাকা এবং ৫ লিটারের মূল্য ৯২৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। বর্তমানে এক লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি করা হচ্ছিল ১৭৮ টাকায়। আজ বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) থেকে বাজারে নতুন মূল্যে সয়াবিন তেল বিক্রি আরম্ভ হবে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সূত্রে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। ভোজ্যতেল পরিশোধন কারখানার মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন গতকাল বুধবার (১৬ নভেম্বর) সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধির এই সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়কে আনুষ্ঠানিকভাবে জানায়। 

চিনির মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত

একইভাবে গতকালই চিনির মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত জানিয়েছে চিনি পরিশোধনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সুগার রিফাইনার্স অ্যাসোসিয়েশন। এর আগে মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের সাথে একাধিকবার বৈঠক করে উভয় সংগঠনের নেতারা।

বোতলজাত সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধি

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আজ বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর)  থেকে ১ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেল ১৯০ টাকায় বিক্রি করা হবে। এত দিন এ দাম ছিল ১৭৮ টাকা। এ ছাড়া ৫ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধি করার কারনে হয়েছে ৯২৫ টাকায়। এত দিন মূল্য ছিল ৮৮০ টাকা, তার মানে নতুন করে বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৫ টাকা। অন্যদিকে খোলা সয়াবিনের মূল্য লিটারে ১৪ টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। তাতে প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন তেলের নতুন মূল্য হচ্ছে ১৭২ টাকা। এত দিন প্রতি লিটার বিক্রি করা হতো ১৫৮ টাকায়। আর প্রতি লিটার খোলা পাম তেল বিক্রি হবে ১২১ টাকায়।

বাজারে চিনির সংকট আছে কি?

অন্যদিকে প্রতি কেজি প্যাকেটজাত চিনি আজ থেকে ১০৮ টাকায় বিক্রি হবে। আগে মূল্য ছিল ৯৫ টাকা। যদিও বেশ কিছুদিন পূর্বেই বাজারে চিনির মূল্য শতক ছাড়িয়ে যায়। বাজারে চিনির সংকটও দেখা দেয়। নতুন দাম অনুযায়ী ৫০ কেজির চিনির বস্তার মূল্য হবে ৫ হাজার ১০০ টাকা। এ ক্ষেত্রে প্রতি কেজি চিনির মূল্য পড়বে ১০২ টাকা।

আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের মূল্যবৃদ্ধি

এর আগে সর্বশেষ গত ৩ অক্টোবর দেশের বাজারে সয়াবিন তেলের মূল্য হ্রাস করা হয় লিটারে ১৪ টাকা। চলতি মাসের ১ তারিখ পুনরায় লিটারপ্রতি ১৫ টাকা মূল্য  বৃদ্ধি করতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেন ভোজ্যতেল পরিশোধন কারখানার মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম মোল্লা। তিনি চিঠিতে উল্লেখ করেন, আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের মূল্যবৃদ্ধি এবং ডলারের বিপরীতে টাকার অস্বাভাবিক দরপতনের কারনে সংগঠনভুক্ত সদস্যরা বোতলজাত প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের মূল্য ১৯৩ টাকা করার প্রস্তাব করেছে।

তথ্যসূত্রঃ প্রথম আলো 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *