বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি APA 2023-24 । এপিএ চুক্তি প্রণয়ন, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন নির্দেশিকা

বার্ষিক কর্মসম্পাদন APA 2022-23 মোতাবেক এপিএ চুক্তি সম্পাদন করতে হবে – বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি APA 2023-24

সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক ‘বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি প্রণয়ন, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন নির্দেশিকা, ২০২৩-২৪’ প্রণীত হয়েছে। নির্দেশিকাটি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ওয়েবসাইটের ‘বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি’ সেবাবক্সে পাওয়া যাবে। নির্দেশিকাটির তৃতীয় অংশে দপ্তর/সংস্থার আওতাধীন মাঠ পর্যায়ের (বিভাগীয়, আঞ্চলিক, জেলা, উপজেলা) অফিসের এপিএ প্রণয়ন, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন পদ্ধতি বর্ণনা করা হয়েছে। মাঠ পর্যায়ের অফিসের এপিএ ক্যালেন্ডার অনুযায়ী খসড়া এপিএ উর্ধ্বতন অফিসে প্রেরণের সময়সীমা ১৫ এপ্রিল ২০২৩ তারিখ পর্যন্ত নির্দেশিকাটিতে দপ্তর/সংস্থাসমূহের আওতাধীন সর্বশেষ অফিসকে এপিএ’র আওতায় আনার এবং এপিএ স্বাক্ষরকারী সকল অফিসকে এপিএএমএস সফট্ওয়্যারের মাধ্যমে এপিএ কার্যক্রম সম্পন্ন করার বিষয়ে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

এপিএ প্রণয়নে প্রত্যেক অফিস তার গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রমসমূহ উল্লেখ করবে এবং রুটিনধর্মী ও ক্ষুদ্র কাজসমূহের উল্লেখ যথাসম্ভব পরিহার করবে। এপিএ-তে সর্বোচ্চ ০৪ (চার)টি কর্মসম্পাদন ক্ষেত্র এবং সর্বোচ্চ ৩০ (ত্রিশ)টি কর্মসম্পাদন সূচক নির্ধারণ করা যাবে; তবে সূচকের সংখ্যা যথাসম্ভব সীমিত রেখে শুধুমাত্র ফলাফলধর্মী ( Performance-based) কার্যক্রম উল্লেখ করাই বাঞ্চনীয়; এবংএপিএ-তে কর্মসম্পাদন ক্ষেত্রের মান যৌক্তিকভাবে নির্ধারণ করতে হবে।

এপিএ’র লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণে বিবেচ্য বিষয়সমূহ কিকি? এপিএতে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করতে হবে; চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের বিষয়টি মূল্যায়নের ক্ষেত্রে বিবেচনায় নেয়া হবে। একটি কার্যক্রম বা লক্ষ্যমাত্রা চ্যালেঞ্জিং কিনা তা কাজের ব্যাপকতা, কর্মসম্পাদনে প্রতিকূলতা, লক্ষ্যমাত্ৰা অর্জনে গৃহীত উদ্যোগ তথা সামগ্রিক প্রয়াস ইত্যাদি পর্যালোচনা করে নির্ধারণ করা হবে।প্রত্যেক অফিস অর্থবছরের শুরুতেই এপিএ-তে উল্লেখিত কোন কোন লক্ষ্যমাত্রা চ্যালেঞ্জিং তার যৌক্তিকতাসহ বিস্তারিত সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন অফিসে প্রেরণ করবে। এপিএ-তে উল্লিখিত বিভিন্ন কার্যক্রমের লক্ষ্যমাত্রাসমূহ অর্থবছরে বরাদ্দকৃত বাজেটের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হতে হবে। এপিএ’র খসড়া প্রণয়নের সময়েই প্রতিটি কার্যক্রমের সঙ্গে সম্ভাব্য বাজেট বরাদ্দের সংযোগ স্থাপন করে নিতে হবে।

বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যমাত্রাসমূহ (যদি থাকে) এপিএ-তে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। সংশ্লিষ্ট প্রকল্প দলিলে উল্লিখিত বছরভিত্তিক লক্ষ্যমাত্রা এবং এডিপি-তে বরাদ্দকৃত বাজেটের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এপিএ’র লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করতে হবে।এপিএ’তে উল্লিখিত সেবাধর্মী কার্যক্রমে সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতি বা সিটিজেনস চার্টারে প্রদত্ত লক্ষ্যমাত্রা অনুসরণ করতে হবে।একই কার্যক্রমের পূর্ববর্তী বছরসমূহের এপিএ’র লক্ষ্যমাত্রার সঙ্গে সামঞ্জস্যতা বজায় রেখে নতুন অর্থবছরের এপিএ’র লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করতে হবে। এক্ষেত্রে সূচকসমূহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণে যথাসম্ভব ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা বজায় রাখতে হবে এবং
কোনো কার্যক্রম বাস্তবায়নে বাজেট বরাদ্দ হ্রাস ব্যতীত বিগত অর্থবছরের তুলনায় লক্ষ্যমাত্রা হ্রাস করা যাবে না।

APA instruction 2023-2024 / নতুন বছরের এপিএ নীতিমালায় যা বিবেচনা করতে হবে

এপিএ প্রণয়নে বিবেচ্য অন্যান্য বিষয়সমূহ কি কি? মাঠ পর্যায়ের এপিএ’র কাঠামোগত বিষয়সমূহে কোন পরিবর্তন আনা হয়নি।মাঠ পর্যায়ের অফিসের এপিএ’র কাঠামো এই নির্দেশিকার পরিশিষ্ট- ক (পৃষ্ঠা নং ৯৯) তে উল্লেখ করা হয়েছে; উক্ত কাঠামোর ভিত্তিতে এপিএ প্রস্তুত করতে হবে। এপিএ’র বিভিন্ন সেকশন প্রস্তুত প্রক্রিয়া এই নির্দেশিকার পরিশিষ্ট- খ (পৃষ্ঠা নং ১১২) তে উল্লেখ করা হয়েছে; উক্ত অংশে বর্ণিত নিয়মাবলির আলোকে এপিএ প্রস্তুত করতে হবে।

Caption: APA 2022-23

এপিএ ২০২৩-২৪ । মাঠ পর্যায়ের (বিভাগীয়, আঞ্চলিক, জেলা, উপজেলা) অফিসসমূহের এপিএ প্রণয়ন, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন নির্দেশিকা

  1. এপিএ’র প্রতিটি কার্যক্রম ও কর্মসম্পাদন সূচক যথাসম্ভব ফলাফলধর্মী হতে হবে;
  2. এপিএ-তে চ্যালেঞ্জিং, উদ্ভাবনমুখী, নাগরিক-সেবা ও সংস্কারমূলক কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে; এক্ষেত্রে প্রতিটি কার্যক্রম/সূচকের গুণগত মান বিবেচনায় চূড়ান্ত মূল্যায়নে নম্বর প্রদান করা হবে; এই নির্দেশিকার মূল্যায়ন অংশে (ছ-১ অনুচ্ছেদে) এ বিষয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা প্রদান করা হয়েছে;
  3. চলমান বিভিন্ন কাজের পাশাপাশি এপিএ-তে পূর্বে অন্তর্ভুক্ত হয়নি এমন গুরুত্বপূর্ণ নতুন কাজ অন্তর্ভুক্তির উদ্যোগ নিতে হবে;
  4. নিজ এবং আওতাধীন অফিসের শূন্যপদ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) পূরণে বিশেষভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে এবং তা সংশ্লিষ্ট অফিসের এপিএ-তে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে;
  5. আইন/বিধি এবং নিজস্ব কার্যতালিকা অনুযায়ী অফিসসমূহকে এপিএ-তে কার্যক্রম নির্ধারণ করতে হবে;
  6. ঊর্ধ্বতন অফিস কর্তৃক প্রণীত নীতি/আইন/ কৌশল/পরিকল্পনা এবং অন্য কোনো নির্দেশনার (যদি থাকে) আলোকে নিজ এপিএ’র কার্যক্রম নির্ধারণ করতে হবে;
  7. বাংলাদেশকে একটি জ্ঞানভিত্তিক অর্থনীতি ও উদ্ভাবনী জাতি হিসেবে স্মার্ট বাংলাদেশ ২০৪১ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সরকার প্রদত্ত নির্দেশনাসমূহ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম প্রযোজ্য ক্ষেত্রে এপিএ-তে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে;
  8. গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পের (যদি থাকে) প্রধান প্রধান কার্যক্রমসমূহ এপিএ-তে অন্তৰ্ভুক্ত করতে হবে;
  9. কার্যক্রম নির্ধারণে বিগত বছরগুলির ধারাবাহিকতা যথাসম্ভব বজায় রাখতে হবে;
  10.  আওতাধীন অফিসের কার্যক্রমের সামাগ্রিক প্রতিফলন নিজ অফিসের এপিএ-তে থাকতে হবে;
  11. যাদের কোনো আওতাধীন অফিস নেই, তাদের স্ব স্ব অংশীজনদের প্রদত্ত সেবার মান উন্নয়ন সংক্রান্ত কার্যক্রম গ্রহণ করবে; (উদাহরণঃ অন্য কোনো সরকারি/বেসরকারি অফিসকে প্রদত্ত সেবা);
  12.  আওতাধীন অফিসের কার্যক্রম পরিবীক্ষণ নিজ এপিএ-তে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে;
  13. বাজেট বরাদ্দ হ্রাসের ক্ষেত্রে আওতাধীন অফিসের কার্যক্রম অনলাইনে পরিবীক্ষণ করা যেতে পারে এবং তা নিজ এপিএ-তে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। এক্ষেত্রে অনলাইনে পরিবীক্ষণের গুণগত মান নিশ্চিতকরণে বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করতে হবে;
  14. নিজ অফিসের উন্নয়ন, প্রশাসনিক ও আর্থিক ব্যবস্থাপনা, কর্মকর্তা-কর্মচারীগণের সক্ষমতা উন্নয়নসহ সার্বিক কার্যক্রমের প্রতিফলন এপিএ-তে থাকবে;
  15. আওতাধীন অফিসের (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) মাধ্যমে প্রদত্ত নাগরিক ও দাপ্তরিক সেবামূলক কার্যক্রম সামষ্টিক আকারে এপিএ-তে অন্তর্ভুক্ত করবে;

কত তারিখের মধ্যে খসড়া প্রণয়ন করতে হবে?

বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি প্রণয়ন, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন নির্দেশিকা, ২০২৩-২৪’-এর তৃতীয় অংশে বর্ণিত নির্দেশাবলি যথাযথভাবে অনুসরণপূর্বক “বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) ২০২৩-২৪ এর খসড়া” প্রণয়ন করে আগামী ১১ এপ্রিল, ২০২৩ তারিখের মধ্যে বাংলাদেশ বেতার, সদর দপ্তর, ঢাকা বরাবর এবং সফট্ওপি (নিকশ ফন্টে, এম এস ওয়ার্ড ফাইল) apa.betar@gmail.com-এ প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। উল্লেখ্য যে, ২০২৩-২৪ অর্থবছর থেকে বাংলাদেশ বেতারের অনুষ্ঠান, বার্তা ও প্রকৌশল শাখার সকল দপ্তরের পৃথক ১০০ নম্বরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) প্রণয়ন করা হবে। বিধায় নিম্নবর্ণিত বিষয়সমূহ বিবেচনাপূর্বক সকল শাখার এপিএ প্রণয়ন করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি প্রণয়ন, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন নির্দেশিকা, ২০২৩-২৪: ডাউনলোড

admin

I am a web developer who is working as a freelancer. I am living in Tangail, Google SEO is a fantasy to me, I can help you to do your website promote in google first page by SEO Service. You can check me at technicalalamin.com

admin has 427 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *