বঙ্গবন্ধুর জন্ম ও পরিচয় । ১৭ মার্চ ২০২৩ বঙ্গবন্ধুর কত তম জন্মদিন?

বাংলাদেশের সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো জাতীয় দিবস হিসেবে এ দিবসটি পালন করে থাকে-একই দিনে জাতীয় শিশু দিবসও পালন করা হয় – বঙ্গবন্ধুর জন্ম ও পরিচয়

বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিন কবে? – বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী বাংলাদেশে সাধারণত ১৭ মার্চ উদযাপন করা হয়। ১৯২০ সালের ১৭ মার্চে বঙ্গবন্ধু সিলেট জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার টঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পাকিস্তানের স্বাধীনতা আন্দোলনে নেতৃত্ব নিয়ে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ প্রচার করেন এবং ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের প্রথম পরিচালক হিসেবে দেশটির প্রথম পরিচালনা করেন। বাংলাদেশে প্রতিবছর বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উদযাপন করা হয়

হিসাব মহানিয়ন্ত্রক এর কার্যালয় এবং এর অধীস্থ অফিসসমূহে ১৭ই মার্চ “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ১০৩ তম জন্মবার্ষিকী” ও “জাতীয় শিশু দিবস” যথাযথ মর্যাদার সাথে পালন করা হবে। এ উপলক্ষে, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা অনুষ্ঠান, দোয়া মাহফিল, স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী ও শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত অনুষ্ঠানসমূহে সিজিএ কার্যালয় ও অধীনস্থ ডিসিএ/ঢাকা এবং সিএএফও কার্যালয়ের কর্মরত সিএএফওগণসহ ৯ম গ্রেড ও তদুর্ধ্ব কর্মকর্তাগণকে ১৭ ই মার্চ ২০২৩খ্রি. রোজ শুক্রবার বিকাল ২:৩০ ঘটিকায় সিজিএ কার্যালয় চত্ত্বর এ আবশ্যিকভাবে উপস্থিত থাকে।

১৭ ই মার্চের বক্তব্য কি? আমি একটি সফল এবং সমৃদ্ধ বাংলাদেশের জন্য কাজ করে এসেছি এবং বাংলাদেশের মানুষের মাঝে আমার প্রিয়জনের মতো হয়েছি। আমি বাংলাদেশের জন্য জীবন দিতে প্রস্তুত আছি এবং একটি সমৃদ্ধ এবং সমগ্র বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করতে চাই। আমি একটি জনপ্রিয় নেতা হতে চাই না বরং আমি একজন প্রকৃত জনপ্রিয় নেতা হতে চাই যার সেবা মানুষের হৃদয়ে স্থায়ী অবস্থান নিয়ে নানা প্রকার সমস্যার সমাধানে সহায়তা করে।

১৭ মার্চ কি শিশু দিবসও পালিত হয়? হ্যাঁ একই দিনে বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিন ও শিশু দিবস পালিত হয়ে থাকে

বঙ্গবন্ধুর জন্ম কত সালে এবং কোথায়? বাংলাদেশের স্বাধীনতা সন্দেশক এবং প্রথম প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমান একজন বাংলাদেশী রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তিনি ১৭ মার্চ, ১৯২০ সালে টঙ্গীপাড়া উপজেলার তাঙ্গাইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা শেখ লুতফুর রহমান একজন মুসলিম জননেতা এবং মাতা শেখ ফাজিলাতুন নেছেন। তার জন্মদিনটি বাংলাদেশে জাতীয় উদযাপনের একটি গৌরবময় দিন হিসাবে পালিত হয়। এই দিনটি বাংলাদেশে জাতীয় শোক দিবস হিসাবেও পালিত হয়।

সিজিএ কার্যালয় এবং এর অধীনস্থ অফিসসমূহে ১৭ই মার্চ ২০২৩খ্রি. বঙ্গবন্ধুর ১০৩ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন PDF

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উদযাপন । কি কি অনুষ্ঠান উদযাপন করা হয়?

  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
  • পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
  • আলোচনা অনুষ্ঠান করা হয়।
  • দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
  • স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী পরিচালনা করা হয়।
  • শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়।

শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম পরিচয়?

শেখ মুজিবুর রহমান ১৭ মার্চ ১৯২০ সালে বাংলাদেশের গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার তাঙ্গাইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন বাংলাদেশী স্বাধীনতা আন্দোলনের নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি প্রথম বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সেবা করেন। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর তিনি বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি হিসেবে কাজ করেন। তিনি একজন রাষ্ট্রবিশ্বস্ত নেতা হিসেবে জানা হন।

বঙ্গবন্ধুর মৃত্যু দিবস কবে?

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সন্দেশক এবং প্রথম প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমান বেঁচে থাকেন একজন নেতা হিসাবে তাঁর জীবন অবসান হয় ১৫ আগস্ট, ১৯৭৫ সালে। তিনি তাঁর জীবনে ব্যক্তিগতভাবে একটি অভূতপূর্ব রাষ্ট্রীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। তিনি সংশ্লিষ্ট সময়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা লড়াইয়ের নেতৃত্ব করেন এবং একজন জনপ্রিয় এবং মানবিক নেতা হিসাবে বিশ্বের সামনে উপস্থাপন করেন।

admin

I am a web developer who is working as a freelancer. I am living in Tangail, Google SEO is a fantasy to me, I can help you to do your website promote in google first page by SEO Service. You can check me at technicalalamin.com

admin has 428 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *