ফিটনেস সার্টিফিকেট ফি ২০২৩ । বিআরটিএ ফিটনেস অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে হয় কেন?

ঘরে বসেই আপনি গাড়ির ফিটনেস নবায়নের জন্য অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে রিজার্ভেশন রাখতে পারেন-বিএসপি ওয়েবসাইট হতে রিকুয়েস্ট রাখতে হবে – ফিটনেস সার্টিফিকেট ফি ২০২৩

ফিটনেস সর্বোচ্চ কয় বছরের জন্য নেয়া যায়?– নিবন্ধনের সময়ই মোটরযানের ধরণ ও তৈরি সনের উপর ভিত্তি করে ৫ বছর, ২ বছর ও ১ বছরের ফিটনেস সনদ প্রদান করা হয়। এরপর মেয়াদ উত্তীর্ণের পূর্বেই মোটরযানের ফিটনেস নবায়নের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। বর্তমানে বিআরটিএ’র যে কোনো সার্কেল অফিসে থেকে মোটরযান হাজির করে পরিদর্শক কর্তৃক সন্তোষজনক পরিদর্শন প্রতিবেদন প্রদানপূর্বক নিবন্ধিত মোটরযানের ফিটনেস নবায়ন করা যায়। ঢাকা বিভাগ ও চট্টগ্রাম বিভাগের আওতাধীন সার্কেল অফিসসমূহ থেকে ফিটনেস সনদ নবায়ন করার ক্ষেত্রে অনলাইনে এ্যাপয়েন্টমেন্ট গ্রহণ করতে হয়। 

গাড়ির ফিটনেস প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কি কি?  নির্ধারিত ফরমে পূরণকৃত ও স্বাক্ষরকৃত আবেদনপত্র (ঢাকা বিভাগ ও চট্টগ্রাম বিভাগের আওতাধীন সার্কেল অফিসসমূহ থেকে ফিটনেস সনদ নবায়ন করার ক্ষেত্রে অনলাইনে এ্যাপয়েন্টমেন্ট গ্রহণ করতে হবে), প্রয়োজনীয় ফি প্রদানের রশিদ, ৩। ফিটনেস সার্টিফিকেটের মূল কপি, হালনাগাদ ট্যাক্স টোকেন এর সত্যায়িত ফটোকপি, TIN সংক্রান্ত কাগজপত্র-এর সত্যায়িত কপি, অনুমিত আয়কর প্রদানের প্রমাণপত্র।

গাড়ি নিয়ে যেতে হয় কি? ফিটনেসের জন্য ইমেইল/মোবাইলে প্রাপ্ত ই – টোকেনের সিরিয়াল নম্বরসহ ফিটনেস নবায়নের আবেদন ফরম পূরণ করে ফিটনেস এবং অগ্রিম আয়করের ফি জমা রশিদ নির্ধারিত সময়ে সংশ্লিষ্ট সার্কেলে মোটরযান হাজির করে, ফিটনেস নবায়ন সনদ গ্রহণ করুন।

গাড়ির নাম্বার দিয়ে ফিটনেস চেক । ফিটনেস নবায়ন ফি । ফিটনেস সার্টিফিকেট ফি ২০২৩

বি আর টি এ ফি ক্যালকুলেটর

গাড়ির নাম্বার দিয়ে ফিটনেস চেক
ফিটনেস নবায়ন ফি
বিআরটিএ ফিটনেস অ্যাপয়েন্টমেন্ট

নিবন্ধিত মোটরযানের ফি

ফিটনেস সনদ গ্রহণের জন্য অ্যাপয়েন্টমেন্ট প্রক্রিয়া  ২০২৩ 

  1. ধাপ-১: (বিএসপিতে রেজিস্ট্রেশন) (1) bsp.brta.gov.bd ==> নিবন্ধন বাটনে ক্লিক করুন ==> নাম, জন্ম তারিখ, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, মোবাইল নম্বর, ইমেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ডের তথ্য দিয়ে “নিবন্ধন করুন” বাটনে ক্লিক করুন ।
    (২) প্রদত্ত ইমেইলে প্রবেশ করুন ==> BSP থেকে প্রাপ্ত মেইলের ইউজার এক্টিভেশন লিংকে ক্লিক করুন ==> পূর্বে প্রদত্ত সেল ফোন/মোবাইল নম্বর বা ইমেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ড প্রদান করে লগ ইন বাটনে ক্লিক করুন => মোবাইল/সেল ফোনে প্রাপ্ত Online Time Password (OTP) প্রদান করে ভেরিফাই বাটনে ক্লিক করে বিআরটিএ সার্ভিস পোর্টাল সিস্টেমে রেজিষ্টেশন কার্যক্রম সম্পু করুন।
  2. ধাপ-২: (মোটরযান সংযুক্তকরণ) সেলফোন/মোবাইল নম্বর বা ইমেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে বিএসপিতে (www.bsp.brta.gov.bd) লগইন করুন ==> মোটরযান নিবন্ধন মেনুতে ক্লিক করুন ==> মোটরযান সংযুক্তকরণ অপশনে ক্লিক করুন ==> রেজিষ্ট্রেশন নম্বর (শেষ চার সংখ্যা), উৎপাদনের বছর, চেচিস নম্বর ও ইঞ্জিন নম্বরের তথ্য দিয়ে অনুসন্ধান করে “সংযুক্ত করুন” বাটনে ক্লিক করুন।
  3. ধাপ-৩: (ফিটনেসের জন্য অ্যাপয়েন্টমেন্ট) অ্যাপয়েন্টমেন্ট মেনুতে ক্লিক করুন ==> ফিটনেসের জন্য অ্যাপয়েন্টমেন্ট এ ক্লিক করুন ==> অ্যাপয়েন্টমেন্ট এর তারিখ, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, শাখা (ঢাকা মেট্রো -১ (সেকশন-১৩ মিরপুর, বাংলাদেশ সচিবালয়সহ), ঢাকা মেট্রো-২ (ইকুরিয়া), ঢাকা মেট্রো-৩ (উত্তরা) ও ঢাকা জেলা (সাভার) সার্কেলের যে কোনো একটি সার্কেল নির্বাচন করুন), টাইম স্লট এবং মোবাইল নম্বর নির্বাচন করে “সংরক্ষণ” বাটনে ক্লিক করুন।
  4. ধাপ-৪: ফিটনেসের জন্য ইমেইল/মোবাইলে প্রাপ্ত ই – টোকেনের সিরিয়াল নম্বরসহ ফিটনেস নবায়নের আবেদন ফরম পূরণ করে ফিটনেস এবং অগ্রিম আয়করের ফি জমা রশিদ নির্ধারিত সময়ে সংশ্লিষ্ট সার্কেলে মোটরযান হাজির করে, ফিটনেস নবায়ন সনদ গ্রহণ করুন।

ফিটনেস অ্যাপয়েন্টমেন্ট হেল্প লাইন নম্বর?

ফিটনেস Expired Date এর তারিখে টাইম স্লটে Serial না থাকলেও Appointment এর জন্য শেষ স্লটে (Slot-4 (02:00 PM – 04:00 PM) আবেদন করতে পারবেন। বিএসপি সংশ্লিষ্ট যে কোনো সমস্যায় ১৬১০৭ বা 09610990998 কল সেন্টার নম্বরে যোগাযোগ করুন (কল সেন্টার সরকারি ছুটির দিন ব্যতীত রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত খোলা থাকে)। বিআরটিএ সার্কেলের হেল্পডেস্ক থেকে বিএসপিতে ফিটনেস অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে সহায়তা প্রদান করা হয়। (৪) তারপরেও যদি বিএসপিতে ফিটনেস অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে কোন ধরণের সমস্যা হয় তাহলে সংশ্লিষ্ট সার্কেলের সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিঃ) এর সাথে যোগাযোগ করুন।

১৫০০ সিসি গাড়ির ট্যাক্স টোকেন ফি কত??

১৫০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির ট্যাক্স পূর্বের ১৫০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২৫০০০ টাকা করা হয়েছে। ১৫০০-২০০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির ট্যাক্স পূর্বের ৩০০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০০০০ টাকা করা হয়েছে। ২০০০-৩০০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির ট্যাক্স ১০০০০০ টাকা করা হয়েছে। ৩০০০-৩৫০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির ট্যাক্স ১২৫০০০ টাকা করা হয়েছে। রাস্তায় গাড়ি চালাতে হলে আপনাকে অবশ্যই ট্যাক্স দিতে হবে অন্যথায় রাস্তায় গাড়ি বের করলেই জরিমানা গুনতে হবে।

BRTA Number Plate Collection Papers । বিআরটিএ তে নাম্বার প্লেট নিতে যাবার আগে যা করবেন

admin

I am a web developer who is working as a freelancer. I am living in Tangail, Google SEO is a fantasy to me, I can help you to do your website promote in google first page by SEO Service. You can check me at technicalalamin.com

admin has 417 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *