গেমারদের জন্য রিয়েলমি চমক

বর্তমান মার্কেট কাপানো একটি সুপরিচিত এবং জনপ্রিয় একটি ব্যান্ড হচ্ছে রিয়েলমি।রিয়েলমির চমক আমরা কিছুদিন পর পর লক্ষ করে থাকি।রিয়েলমি এবার গেমারদের কথা মাথায় রেখে বাজারে নিয়ে আসলো রিয়েলমি সুপার ফাষ্ট গেমিং GT Neo 3T।চলুন জেনে নেই রিয়েলমির অসাধারন মার্কেট কাপানো সেই ফোন বিষয়ে এবং সুপার টেকনোলোজির ফিচার সম্পর্কে।

ব্যাটারিঃ আমরা সবাই জানি গেমার দের চার্জিং বিষয় নিয়ে প্রচুর অভিযোগ রয়েছে।চার্জ ইস্যুটা অনেক নির্ভর করে একটি গেমিং ফোনের উপর।যেতুহু রিয়েলমি GT Neo 3T একটি গেমিং ডিভাইস তাই এটাতে ব্যবহার করা হয়েছে লিথিয়াম পলিমার ৫০০০ এম্পিয়ার নন রিমুভেবল ব্যাটারি যার পারফরম্যান্স থাকবে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত।
এবং আরো অবাক করা ফিচার হচ্ছে ফোনটিতে রয়েছে ৮০ ওয়াট এর সুপার ফাস্ট চার্জিং যা মুহুর্তের মধ্যে ফোনটিতে ফুল চার্জ করতে সক্ষম।

ডিসপ্লেঃ রিয়েলমি GT Neo 3 T তে ব্যবহার কররা হয়েছে করনিং গরিলাগ্লাস ৫। সেই সাথে ৬.৬২” এর বিশাল ডিসপ্লে সাইজ যা আপনার গেমিং কে আরো সুন্দর পারফরম্যান্স দিতে সক্ষম

ক্যামেরাঃ ক্যামেরা হলো এই ফোনটির অন্য একটা আকর্ষণীয় দিক।ফোনটির পিছনে ওয়াইড,আল্ট্রাওয়াইড এবং ম্যাকরো। যথাক্রমে ৬৪, ৮ এবং ২ মেগাপিক্সেল ত্রিপল ক্যামেরা সিষ্টেম ব্যবহার করা হয়েছে ফোনটিতে। ফোনটির সামনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরাএবং ব্যবহার করা হয়েছে এল ই ডি ফ্লাস।ভিডিও কুয়ালিটির দিক বলতে গেলে ফোনটিতে 4k সহ সব ধরনের কোয়ালিটি। ফোনটির ক্যামেরার ছবিগুলো অনেক স্মুথ এবং দৃষ্টিনন্দন।

গেমিং পারফরম্যান্সঃ আপনার গেমিং পারফরম্যান্স দ্বিগুণ করার জন্য ফোনটিতে চিপসেট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০।যা আপনার গেম কে স্মুথ ভাবে চলতে সাহায্য করবে।আর ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৮ জিবি র‍্যাম এবং মেমোরি কার্ড হিসেবে থাকছে ২৫৬ জিবির বিশাল মেমোরি ভান্ডার। সব মিলিয়ে ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে সুন্দর সুন্দর সব ফিচার যার মধ্যে অন্যতম আন্ডার ডিসপ্লে ফিংগারপ্রিন্ট। যা শুধু গেমার রাই নয় সব ধরনের মানুষের কাছে এই ফোন টা হয়ে উঠেছে বেশ জনপ্রিয়।

দামঃ এত সব হাইকুয়ালিটি ব্যবহার করেও ফোনটি দাম স্বাভাবিক অবস্থাতেই রয়েছে। রিয়েলমি GT Neo 3T এর অফিসিয়াল মুল্য বাংলাদেশে ৩৯,৯৯০ টাকা ধরা হয়েছে।যেটি ফোনটির পারফরম্যান্স এর তুলনায় খুব একটা বেশি নয়।

রিয়েলমির এই চমৎকার ফিচার সবারই পছন্দ।সাথে ফোনগুলোতে ব্যবহৃত হয়েছে নজরকারা ডিজাইন ও কালার কম্বিনেশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *