ইভ্যালি অফার ২০২২ । পিক এন পে – PNP এবং ক্যাশ অন ডেলিভারি COD পদ্ধতি ২০২২

নতুন করে শুরু হচ্ছে ইভ্যালি – প্রথমেই দুটি পদ্ধতিতে পন্য বিক্রয় করবে ইভ্যালি – অনলাইনে পেমেন্টের কোন সুযোগ থাকবে না– ইভ্যালি অফার ২০২২

ইভ্যালি অফার ২০২২ – ইভ্যালি’র ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে কমেন্টে জানানো হয়েছে যে, আশা করছি অতি শীঘ্রই ইভ্যালিতে রেগুলার কেনাকাটা করতে পারবেন। আপাতত দুই ভাবে প্রিয় ভোক্তারা ইভ্যালি থেকে কেনাকাটা করতে পারবেন। যথাক্রমে পিক এন পে(PnP) এবং ক্যাশ অন ডেলিভারি(CoD)

১) পিক এন পে (PnP) : এই প্রক্রিয়ায় একজন মার্চেন্ট বা বিক্রেতা তার শপের পণ্য কম লভ্যাংশ রেখে সর্বনিম্ন দামে ভোক্তা বা গ্রাহকের জন্য অফার করবে, ভোক্তারা তার প্রয়োজনীয় এবং পছন্দকৃত পণ্য অনলাইনে ইভ্যালিতে অর্ডার করে মার্চেন্ট বা বিক্রেতার নির্দিষ্ট শোরুম বা লোকেশন থেকে গ্রহণ করার সময় গ্রহণকৃত পণ্যের অফার কৃত মূল্য পরিশোধ করবে।

২) ক্যাশ অন ডেলিভারি (CoD) : এই প্রক্রিয়ায় একজন মার্চেন্ট বা বিক্রেতা তার শপের পণ্য কম লভ্যাংশ রেখে সর্বনিম্ন দামে ভোক্তা বা গ্রাহকের জন্য অফার করবে। ভোক্তারা তার প্রয়োজনীয় এবং পছন্দকৃত পন্য অনলাইনে ইভ্যালিতে অর্ডার করবে, মার্চেন্ট বা বিক্রেতা তার শপের ড্যাশ বোর্ডে অর্ডার প্রাপ্তির পর ক্রেতাকে ফোন করে অর্ডার নিশ্চিত করে কুরিয়ার খরচ প্রাপ্তি সাপেক্ষ অর্ডারকৃত পণ্য কুরিয়ার করে দিবে ভোক্তার নিদিষ্ট ঠিকানায়। ভোক্তা বা ক্রেতা অর্ডারকৃত পণ্য কুরিয়ার থেকে গ্রহণ করার সময় পণ্যের মূল্য পরিশোধ করবে। উল্লেখ্য প্রত্যেক মার্চেন্ট বা বিক্রেতার শপে নির্ধারিত যে কোন মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসের নম্বরে কুরিয়ার খরচ গ্রহণ করতে হবে।

ভাই আমিও চাই ইভ্যালি আবার রান করুক। কিন্তু আমার মনে হয় আমিই একজন পোড়া কপাল যে কিনা একটা প্রডাক্ট ও পাই নাই

Evaly.com.bd – Khairul Bashar Siddiq আমাদের সাথে আপনার অভিযোগ শেয়ার করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আমরা আশা করছি দ্রুতই এসব সমস্যা সমাধানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। ইভালির সাথে থাকুন

ইভ্যালি অফার ২০২২ । পিক এন পে - PNP এবং ক্যাশ অন ডেলিভারি COD পদ্ধতি ২০২২

Caption: Evaly is coming soon with new and exciting offer

What about previous cheque…??

–Evaly.com.bd – Limon Bd “All kinds of information about this will be provided very soon. Keep an eye on our official Facebook page https://www.facebook.com/evaly.com.bd/ Stay with Evaly.”

ইভ্যালির সম্ভাব্য পরবর্তী পদক্ষেপ গুলো কি কি?

১। আগামী ১৫ অক্টোবর এর মধ্যে সার্ভার চালু হবে।

২।আগামী ১লা নভেম্বর এর মধ্যেই পহেলা জুন ২০২১ থেকে যে টাকাগুলো অর্ডারের জন্য পেমেন্ট করা হয়েছে সে টাকাগুলো এসক্রো তে আছে। সেটা রিফান্ড হওয়া শুরু হবে সবার প্রথমেই।আর এটাই হবে ইভ্যালির দেনা পরিশোধের প্রাথমিক ধাপ। নিম্নে তা উল্লেখ করা হলো। ক. SSL কর্মাসের ব্যাংক ডিপোজিট টাকা গুলো ১-৩০ নভেম্বর এর মধ্যে রিফান্ড হবে। খ.MFS – বিকাশ, রকেট সহ সকল মোবাইল ব্যাংকিং এর টাকা গুলো ১৫ নভেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর এর মধ্যেই রিফান্ড হবে। উল্লেখ, নগদ গেটওয়ে এর রিফান্ড পেতে একটু সময় লাগবে সেটা ১৫ নভেম্বর থেকে ১৫ জানুয়ারি।

৩।যাদের অর্ডার ৩১ জানুয়ারি ২০২১ এর আগে তাদের টাকা রিফান্ড হতে সময় লাগবে এখন থেকে আরো ১২ মাস।

৪।যাদের অর্ডার ৩০ জানুয়ারি ২০২১ থেকে ৩১ মে ২০২১ তাদের টাকা রিফান্ড হতে সময় লাগবে এখন থেকে আরো ১৮ মাস।

৫।রাসেল সাহেব গ্রেফতার হওয়ার পরও কিছু প্রডাক্ট কুরিয়ার এ ছিলো। এবং সুযোগ সন্ধানী কুরিয়ার সেগুলো রেখে দেয় সেগুলোর সমাধান হতে আগামী ৪-৬ মাস লাগবে।এবং এটার দায়ভার কুরিয়ার কতৃপক্ষ এবং ইভ্যালির।

৬।যাদের চেক আছে এবং যেহেতু ৬ মাস পেরিয়ে গেছে তাদের চেক কে বলা হয় স্টেল বা বাসি চেক_কোন চেক যখন উল্লেখিত তারিখের ৬ মাস বা ১৮০ দিন পরে ব্যাংকে উপস্থাপন করা হয় তখন তাকে স্টেল চেক বলে। এ ধরনের চেকের বিপরীতে ব্যাংক কখনো টাকা দেয় না।আর তাই ইভ্যালি কতৃপক্ষ সেই চেকগুলো আবার ফেরত নিয়ে নিবে।এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। বিশ্বাস রাখেন যে, সর্বোচ্চ ১৮ মাসের মধ্যেই সকল দেনা পরিশোধ করবে ইভ্যালি। তাই আস্থা রাখুন ইভ্যালির প্রতি। আর নিয়মিত অর্ডার করার প্রস্তুতি নিন। কেননা এখন টাকা কোথাও যাওয়ার কোন কোন স্কপ নেই। প্রথম তাদের বিজনেস মডেল হবে COD (Cash On Delivery) পন্য হাতে পেয়ে মূল্য পরিশোধ এবং PnP (Pick And Pay) পন্য পিকাপ পয়েন্ট থেকে সংগ্রহ করে মূল্য পরিশোধ। এই দু’টো সিস্টেম চলতেই থাকবে।

একই সাথে গেটওয়ে ব্যাংক একাউন্ট আনফ্রিজ করার পর তাদের পুরনো সিস্টেম তথা অনলাইনে মূল্য পরিশোধ করার সিস্টেম টাও আসবে। এখন আর আগে পেমেন্ট করাতে কোন ভয় নাই।কেননা এখন এসক্রো সিস্টেম এ টাকা থাকবে। এসক্রো হ’ল একটি চুক্তিভিত্তিক ব্যবস্থা যেখানে কোনও তৃতীয় পক্ষ লেনদেনকারী পক্ষগুলির দ্বারা সম্মত শর্তাদির উপর বিতরণের উপর নির্ভর করে প্রাথমিক লেনদেনকারী পক্ষগুলির জন্য অর্থ বা সম্পত্তি প্রাপ্ত এবং বিতরণ করে। ইভ্যালি আসতেছে এটা সুখবর।

কিন্তু দয়া করে কেউ লাফালাফি করবেন না। বিশেষত, যাদের অর্ডার জুন ২০২১ এর আগে তাদের এই ঘাটতি পূরণ করতে সর্বোচ্চ ১৫-১৮ মাস সময় লাগবে।মনে রাখবেন এবার ইভ্যালি গেলে আর ফিরবেনা কোনদিন ও।কেননা এটাকে দেউলিয়া করার জন্য এখনও প্রচুর পরিচিত মুখ লেগে আছে, নতুন নতুন চক্রান্ত করতেছে। আপনি আমি যত অধৈর্য হবো এতে লাভের লাভ কিছুই হবেনা সাথে আশার প্রদীপটাও একেবারে নিভে যাবে ধপ করে। এর থেকে এটা শ্রেয় নয় কি? যে একটু ধৈর্য ধরে নিভু নিভু প্রদিপটাকে জালিয়ে রাখি।

বিশ্বাস করেন ইভ্যালি বেচে থাকলে আপনার টাকা আপনি ১০০% পাবেন। মনে রাখবেন ইভ্যালির উদ্দেশ্য সবসময় সৎছিলো।তাদের এই অবস্থা হওয়ার কারণ হলো অতিরিক্ত ব্রান্ডিং যা বিজনেস মডেলে সেটা খুব দ্রুত অগ্রসর হতে চেয়েছিলো।এবার সেইগুলা সংশোধন করবে।আপনাদের পাশে থাকা একান্ত কাম্য।

admin

I am a web developer who is working as a freelancer. I am living in Tangail, Google SEO is a fantasy to me, I can help you to do your website promote in google first page by SEO Service. You can check me at technicalalamin.com

admin has 428 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *